Templates by BIGtheme NET
২৪ আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৯ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২২ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

রোজা আসলেই যে ফলকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেন ফরিদপুরের কৃষকরা!

প্রকাশের সময়: মে ৩০, ২০১৯, ৪:১১ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের ফরিদপুর জেলাকে কৃষির প্রাণকেন্দ্র বলা হয়ে থাকে। এই জেলাতে দেশের প্রধান পাট, ধান, ইক্ষু, গম, পেঁয়াজ, সরিষা সহ নানা ফসল উৎপন্ন হয়। কৃষকরা সারাবছরই চাষ করে থাকেন এগুলো। কিন্তু এমন একটি ফসল রয়েছে যা সব মৌসুমে চাষের উপযোগি হলেও শুধু রমজান মাসকে কেন্দ্র করে কৃষকরা আবাদ করে থাকেন।

বলা হয়ে থাকে, কৃষকদের স্বপ্ন তাদের ফসলকে কেন্দ্র করে। ফরিদপুর জেলার কৃষকরা তাদের নিজ নিজ এলাকায় একটি নির্দিষ্ট ফল চাষ করেন শুধু রমজান মাসকে মাথায় রেখে। ফলটি দেখতে কিছুটা বাঙ্গির মতো হলেও স্বাদ ও গন্ধে আসলে কিছুটা তফাৎ রয়েছে। কৃষকদের দাবি, এই ফলটির নাম লালমি ভাঙ্গি। এটি খেলে ‘পেট ঠাণ্ডা থাকে’।

জানা যায়, রমজান মাস শুরু হতে প্রতিবছর যতটুকু সময় পরিবর্তন হয়, তার সাথে হিসেব করেই ফরিদপুরের কৃষকরা এই ফসল আবাদ করেন। এ বিষয়ে ফরিদপুর সদরপুরের কৃষক আলীম খাঁ বলেন, রোজায় অনেকে এটি পছন্দ করতো। তা দেখে আমরা সবাই রোজার কথা মাথায় রেখেই এটির আবাদ শুরু করি। তিনি আরও জানান, ১৫ বছর আগে প্রথম এই ফলটি চাষ শুরু করেছিলেন তিনি। লাগানোর ঠিক দুই মাসের মধ্যে ফল তোলা যায়। রমজান মাসে এর চাহিদা বেশি থাকে। দামও পাওয়া যায় ভালো। আর এতে খুশি তিনি।

এ বিষয়ে ফরিদপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কার্তিক চন্দ্র চক্রবর্তী বলছেন, নতুন এই জাতটি এক অর্থে এখানকার কৃষকদেরই উদ্ভাবন। তিনি বলছেন এটি অন্য জেলাগুলোতেও ছড়িয়ে দেয়ার চিন্তা চলছে। এখন ফরিদপুরে শুধু সদরপুর উপজেলাতেই ৬০০ হেক্টরের বেশি জমিতে সেখানকার কৃষকরা ফসলটি আবাদ করছেন।

তিনি আরও বলেন, এটিকে নতুন কোনও ভ্যারাইটি হিসেবে নামকরণ করা যায় কিনা তা নিয়ে আমরা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউটের বিজ্ঞানীদের সাথে যোগাযোগ করেছি। তারা এখান থেকে বীজ সংগ্রহ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twenty − eleven =