Templates by BIGtheme NET
৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

যেভাবে ক্ষয়িষ্ণু হতে থাকেন খালেদা?

প্রকাশের সময়: জুন ১১, ২০১৯, ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

২০০৮ সালের ১১ জুন ও ১১ সেপ্টেম্বর ১/১১ সরকারের কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করে বাংলাদেশের রাজনীতির শীর্ষ জনপ্রিয় দুই নেত্রী শেখ হাসিনা ও বেগম খালেদা জিয়া। ঐ বছরই ডিসেম্বরের নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় আওয়ামী লীগ। এর ফলে রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে আবির্ভূত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যদিকে ক্রমশ ক্ষয়িষ্ণু হতে থাকেন বেগম খালেদা জিয়া।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বেগম খালেদা জিয়া বর্তমান অবস্থার জন্য তিনি নিজেই দায়ী। কারণ ক্ষমতায় থাকাকালে এবং পরবর্তী সময়ে তিনি কতগুলো কাজ করেছেন যা তার রাজনৈতিক জীবনের জন্য ক্ষতির সৃষ্টি করেছে।

বিশ্লেষকদের মতে, ক্ষমতায় থাকাকালে বেগম জিয়া পুত্রদের এবং নিকটাত্মীয়দের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আমলে নেননি। যার কারণে পুত্রের বন্ধু এবং নিকটাত্মীয়রা দুর্নীতির সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছেছে। এছাড়া যারা তারেক রহমান ও আরাফাত রহমানের বা তাদের বন্ধুদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে এসেছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। সচিব নুরুল ইসলামকে চাকরিচ্যুত করা তারই প্রমাণ।

বেগম জিয়ার রাজনৈতিক ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, তিনি কখনোই তৃণমূলকে গুরুত্ব দেননি। তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে তার সাক্ষাতের ঘটনা কারোই চোখে পড়েনি। যার কারণেই গ্রেপ্তার হওয়ার পরও বড় কোন আন্দোলন গড়ে উঠেনি বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

অন্যদিকে, বেগম জিয়ার একান্ত সচিবদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে থাকাকালে তিনি কখনোই ফাইল দেখে তাতে স্বাক্ষর করেনি। লুৎফুজ্জমান বাবরের মতো কিছু দুর্নীতিবাজ এই সুযোগটিই কাজে লাগিয়েছে বলে মনে করছেন বেগম জিয়ার নিকটাত্মীয়রা।

এছাড়া দলে বা ফোরামে নিজের মত চাপিয়ে দেওয়া ছিলো বেগম জিয়ার সবচেয়ে বড় ভুলগুলোর একটি। জানা যায়, দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠক বা মন্ত্রিসভার মতো শীর্ষ বৈঠকে তিনি কথা কম বলতেন এবং শেষে একটা সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিতেন। অন্যের মতকে তিনি কখনোই গুরুত্ব দেননি বলেও জানা যায়। যার কারণে বিএনপিতে তার গুরুত্ব কমেছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। এতে নেতারা বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য বড় কোন আন্দোলন গড়ে তুলছেন না বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

sixteen − 8 =