Templates by BIGtheme NET
২৪ আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৯ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২২ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

এবার ডাঃ জাফরুল্লাহ গালি দিলেন গণবি শিক্ষার্থীকে: সমালোচনার ঝড় (অডিওসহ)

প্রকাশের সময়: জুন ১২, ২০১৯, ১২:৪২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদ:  ‘তোমরা মানুষের বাচ্চা না’ বলে গণবি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের গালি দিয়ে আবারও সমালোচনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র মাহতাবুর রহমানকে তিনি এই ভাষায় গালি দেন।

জানা গেছে, আন্দোলনকারীদের প্লাটফর্ম গণ বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ছাত্র পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহতাবুর রহমানের সঙ্গে ফোনালাপকালে তিনি এ কথা বলেন। বিদ্যমান সংকট নিরসনের উপায় খুঁজতে মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে ডা. জাফরুল্লাহর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলতে চাইছিলেন মাহতাবুর। দু’জনের ফোনালাপের অডিও এরইমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) অনুমোদিত উপাচার্য নিয়োগের দাবিতে গণ বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ছাত্র পরিষদের ব্যানারে গত ৬ এপ্রিল থেকে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন এবং সব ধরনের প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দিয়ে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষার্থীরা। এ নিয়ে দফায় দফায় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনায় বসে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি দল। তবে আলোচনায় কোনো কার্যকর সমাধান না আসায় আন্দোলনে অটল থাকে শিক্ষার্থীরা। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বারবার শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষায় অংশ নিতে আদেশ দিতে থাকে, যদিও শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলনই চালিয়ে যায়।

এই অচলাবস্থা কাটাতে গণ বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ছাত্র পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহতাবুর রহমান প্রতিষ্ঠানের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে উল্টো বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দেওয়ার কথা শোনেন। দু’জনের ফোনালাপ তুলে ধরা হলো।

মাহতাবুর রহমান: স্যার, আসসালামু আলাইকুম!
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী: ওয়ালাইকুম-আসসালাম!

মাহতাবুর রহমান: স্যার, আপনি আমাদের সাথে বসেন, শিক্ষার্থীদের জন্য কী করবেন, বৈধ ভিসি ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় চলবে নাকি?
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী: না, তোমাদের সাথে বসবো না, তোমরা মানুষের বাচ্চা না!

মাহতাবুর রহমান: স্যার আমাদের তো ভিসি নাই, বিবিএ, মেডিকেল, ফিজিওথেরাপি’র অনুমোদন নাই, এগুলো দেবেন না আমাদের?
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী: তোমরা অন্য ইউনিভার্সিটিতে চলে যাও। অন্য জাগায় চলে যাও, বাজে কথা বলো না। তুমি ছাড়ো, এবার তুমি ছাড়ো!

মাহতাবুর রহমান: আমরা অন্য জায়গায় যাবো কেন, স্যার? আমরা আমাদের জীবন নিয়ে অনিশ্চিত। আপনারা কী করতে চান আমাদের নিয়ে? আমরা শিক্ষার্থীরা অনিশ্চয়তার মধ্যে ভুগতেছি স্যার।

মাহতাবুর রহমানের সঙ্গে ডা. জাফরুল্লাহর ফোনালাপের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে কথা বলেন গণ বিশ্বদ্যিালয় সাধারণ ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক আহমেদ রনি। তিনি আগামী বুধবার (১২ জুন) থেকে কঠোর আন্দোলনেরও ডাক দেন।

তিনি বলেন, ‘ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী স্যার, যাকে আমার স্যার বলতেও লজ্জা লাগে। বড় নামে যিনি পরিচিত। আমরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বৈধ ভিসি না আসা পর্যন্ত তালা লাগিয়ে দেবো। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী না আসা পর্যন্ত বিশ্বিদ্যালয়ে তালা থাকবে। আমরা আগামীকাল থেকে কঠোর কর্মসূচিতে যাবো।’

ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সাধারণ ছাত্রকে গালি দেওয়া ঠিক হয়নি বলে মন্তব্য করে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ যতীন সরকার বলেন, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি একজন ছাত্রকে এটা বলতে পারেনা। এটা কোন ভদ্র লোকের ভাষা না। শিক্ষার্থীরা হচ্ছে সন্তান সমতুল্য তাদের সাথে শিষ্টাচার মোতাবেক কথা বলতে হবে।

সাবেক ভিসি ঢাবি ড. একে আজাদ চৌধুরী বলেন, গণ বিশ্ববিদ্যালয় একটি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানে সমস্যা হতেই পারে তার সমাধানও আছে। তাই বলে অশালিন ভাষা ব্যবহার করতে হয় না। অসাধু ভাষা ব্যবহার করলে সমস্যা সমাধান হয় না। বরং সমস্যা আরো বৃদ্ধি পায়। সমস্যা সমাধান করতে প্রয়োজন আলোচনা। গঠনমূলক আলোচনা ছাড়া গণবির সমস্যা সমাধান হবে বলে আমি মনে করিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

seventeen − nine =