Templates by BIGtheme NET
৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সুবিধা বাড়ল

প্রকাশের সময়: জুন ১৩, ২০১৯, ১১:০১ অপরাহ্ণ

আগামী অর্থবছরে পুঁজিবাজারে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের করমুক্ত লভ্যাংশ আয়ের সীমা ২৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা করা হয়েছে। এ ছাড়া পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির শেয়ার থেকে প্রাপ্ত লাভের ওপর দ্বৈত কর পরিহার করা হবে।

১৩ জুন জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পেশ করা হয়। বাজেটে পুঁজিবাজারের জন্য এই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। প্রস্তাবিত বাজেটে বলা হয়, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকে উৎসাহিত করতে বিশেষ প্রণোদনা ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে।

নিবাসী কোম্পানির লভ্যাংশ আয়ের ওপর গত বছর দ্বৈতকর প্রত্যাহার করা হয়েছিল। আর এবার বিদেশী বিনিয়োগ উৎসাহিত করার জন্য আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে নিবাসী ও অনিবাসী সব ধরনের কোম্পানির লভ্যাংশ আয়ের ওপর দ্বৈতকর প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

পুঁজিবাজারে সুশাসন নিশ্চিতের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে নজরদারি জোরদার করার কথা জানিয়ে নগদ লভ্যাংশকে উৎসাহিত করতে কোনো কোম্পানি স্টক লভ্যাংশ ঘোষণা করলে এর ওপর ১৫ শতাংশ হারে করারোপ করার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এতে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে যৌক্তিক কারণ ছাড়া স্টক লভ্যাংশ প্রদানের প্রবণতা কমবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

পুঁজিবাজারের অনেক কোম্পানির মধ্যে তাদের মুনাফার অর্থ শেয়ারহোল্ডারদের না দিয়ে অবণ্টিত মুনাফা ও সঞ্চিতি হিসেবে অর্থ রেখে দেয়ার প্রবণতা দেখা যায়। এতে শেয়ারহোল্ডাররা বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি পুঁজিবাজারেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর এ ধরনের প্রবণতা রোধ করতে কোনো কোম্পানির অবণ্টিত মুনাফা ও সঞ্চিতির পরিমাণ যদি এর পরিশোধিত মূলধনের ৫০ শতাংশের বেশি হয় তাহলে সেক্ষেত্রে যতটুকু বেশি হবে তার ওপর কোম্পানিকে ১৫ শতাংশ কর প্রদানের প্রস্তাব করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

20 − 6 =