Templates by BIGtheme NET
৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

মুক্তি মঞ্চে যেতে চান কাদের সিদ্দিকী, জামায়াতকে নিয়ে অস্বস্তি!

প্রকাশের সময়: জুলাই ১১, ২০১৯, ৭:৩৯ অপরাহ্ণ

ড. কামালের ভূমিকা, বিএনপির আধিপত্যসহ কয়েকটি অভিযোগ দেখিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ত্যাগ করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। এরপরই লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমেদের ‘মুক্তি মঞ্চে’ যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা ছিলো তার। কিন্তু মুক্তি মঞ্চে জামায়াতের সমর্থন থাকায় কর্নেল অলির সাথে যুক্ত হতে অস্বস্তি কাদের সিদ্দিকীর।

জানা যায়, ঐক্যফ্রন্টের নিস্কৃয়তার কারণে এমনিতেই বিরক্ত ছিলেন কাদের সিদ্দিকী। এর মধ্যে নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ তৈরি করেন কর্নেল অলি। যাতে যুক্ত হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ দেখান তিনি। সূত্র বলছে, কর্নেল অলির পরামর্শেই ঐক্যফ্রন্ট ত্যাগ করেন কাদের সিদ্দিকী। যদিও তার মুক্তি মঞ্চে যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে জামায়াতের সংশ্লিষ্টতা নিয়ে আপত্তি রয়েছে। তবে নতুন জোট শক্তিশালী করার স্বার্থে জামায়াতের অন্তরালের উপস্থিতির বিষয়ে কিছুটা ছাড় দিতে রাজি রয়েছেন তিনি।

এলডিপি সূত্র বলছে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নিস্কৃয়তা ও বিএনপির সাথে ফ্রন্টের টানাপোড়নের কারণে মুক্তি মঞ্চের ভবিষ্যৎ নিয়ে বেশ আশাবাদী অলি আহমদ। যদিও জামায়াতের উপস্থিতির বিষয়ে বারবার প্রশ্নের সম্মুখিন হতে হচ্ছে এই মুক্তিযোদ্ধাকে। এরপরও সরকারবিরোধী আন্দোলন গড়তে যেকোন রাজনৈতিক দলকে পাশে চান সাবেক এই বিএনপি নেতা।

জানা যায়, ১০ জুলাই সকালে এলডিপির মহাসচিব ডা. রোদোয়ান আহমেদের কাছে একটি চিঠিও পাঠিয়েছেন কাদের সিদ্দিকী। চিঠিতে অলি আহমদ দেশে ফিরলে তার সাথে বৈঠকে বসে মঞ্চের পরিধি বাড়ানো ও বিকল্প আন্দোলন গড়ে তোলার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি।

এসম্পর্কে এলডিপির যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম বলেন, আমরা মুক্তি মঞ্চের পরিধি বাড়াতে তৎপরতা চালাচ্ছি। সমমনা দলগুলোকে নিয়ে আমরা সরকারবিরোধী শক্তিশালী একটি প্লাটফর্ম গঠন করতে চাই। এখানে যে কেউ আসতে পারে। বঙ্গবীরও আমাদের এই জোটে অংশগ্রহণ করতে প্রাথমিক আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

এদিকে, মুক্ত মঞ্চে যুক্ত হওয়ার বিষয়ে মাহমুদুর রহমানের নাগরিক ঐক্যসহ আরো কয়েকটি রাজনৈতিক দল আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে জানা গেছে। তবে জামায়াতের উপস্থিতি নিয়ে তাদের আপত্তি। যদিও তারা বলছেন, জামায়াতের মূল দল বাদ দিয়ে নতুন কোন নামে যুক্ত হলে তাদের আপত্তি নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twenty − 18 =