Templates by BIGtheme NET
১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৫ সফর, ১৪৪১ হিজরী

এগিয়ে আসছেন আওয়ামী লীগের ক্লীন ইমেজের নেতারা

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ৭, ২০১৯, ২:৩৮ অপরাহ্ণ

সরকারের চলমান শুদ্ধি অভিযানের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে দলের তৃণমূলসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনগুলোতে। তৃণমূলের নেতারা বলছেন, আসন্ন ২১তম জাতীয় সম্মেলনের আগে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে এর ব্যপক প্রভাব পড়বে।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ায় ছিটকে পড়তে পারেন বিতর্কীত বহু নেতাই। ফলে দুর্নীতিতে জড়িতদের বাদ পড়ার সম্ভাবনায় আশাবাদী হয়ে উঠেছেন ত্যাগী ও ক্লিন ইমেজের নেতারা। বিভিন্ন সময়ে ‘পদবঞ্চিত’ এই নেতারা মনে করছেন, শুদ্ধি অভিযানের ফলে তাদের বিভিন্ন কমিটিতে স্থান পাওয়ার পথ তৈরি হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, সুবিধাবাদী হিসেবে যারা জায়গা করে নিয়েছেন, তাদের চিহ্নিত করে দল থেকে বের করে দেয়া হবে। দলটা তাদের নয়। আওয়ামী লীগ সবার দল। যারা ত্যাগী, বঞ্চিত, তাদের জায়গা করে দেয়া হবে। যারা দলের আদর্শকে সমুন্নত রেখে রাজনীতি করেন, তারাই নেতৃত্বে আসবেন।

তৃণমূল নেতারা বলছেন, যারা টেন্ডারবাজী, চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন অসৎ উপায়ে টাকা কামিয়েছেন তারা অর্থের জোরে বিভিন্ন কমিটিতে ঢুকে পড়েছে। বিভিন্ন পদে অবস্থান করে তারা ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে। ফলে সৎ নেতারা ধীরে ধীরে দল থেকে দুরে সরে গেছে। এখন শুদ্ধি অভিযানের আদর্শবান নেতাদের আবার ফিরে আসার সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে।

জানা গেছে, আসন্ন জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে দল থেকে দুরে থাকা ত্যাগী ও আদর্শবান নেতারা আবার দলে ফিরে আসার জন্য তোড়জোড় শুরু করেছেন। বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক বৈঠকে তারা অংশ নিচ্ছেন। নতুন কমিটিগুলোতে তারা ব্যপকহারে অংশ নেবেন বলে ধারণা করছেন তৃণমূল নেতারা।

এ বিষয়ে দলের এক শীর্ষ নেতা বলেন, আওয়ামী লীগে লোকের অভাব নেই, তাই খারাপ লোকের দরকার নেই। শেখ হাসিনা ভালো লোকদের জন্য আওয়ামী লীগের রাজনীতির দুয়ার খুলে দিচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, রাজনীতি যারা করতে চান, তাদের রাজনীতিই করতে হবে। রাজনীতির বাইরে কিছু করতে চাইলে তাদের অন্য পথ দেখতে হবে। রাজনীতিকে ব্যবহার করে কোনও টাকা-পয়সা কামানো যাবে না। এটাই শেখ হাসিনার বার্তা। আর এটার প্রতিফলন আগামীদিনের রাজনীতিতেও দেখা যাবে বলে দাবি করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × four =