Templates by BIGtheme NET
১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৫ সফর, ১৪৪১ হিজরী

আবরার হত্যাকাণ্ডে ফেসবুকে ভাইরাল ফেক ছবি ও ভিডিও

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ৯, ২০১৯, ২:৫৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদ: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় তোলপাড় সারাদেশ। ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ঘটনার সিসিটিভির ফুটেজ। তবে ওই ভিডিও ছাড়াও আরও একটি ভিডিও এবং একটি প্যান্ট পরিহিত ছবি ভাইরাল হয়েছে। আবরার হত্যাকাণ্ড বলে প্রচার করছেন অনেকে। যা সম্পূর্ণ ভুয়া।

৮ অক্টোবর থেকে অনেকের ফেসুবক টাইমলাইনে দেখা যাচ্ছে ভুয়া ছবি ও ভিডিওটি। ভিডিওটি পোস্ট করে কেউ বলছেন, এটাই আবরারকে প্রহারের ভিডিও। ভিডিওর শিরোনামে লেখা হয়েছে, আবরার ফাহাদকে খুনিরা যে ভাবে খুন করল। ছবিটিতে লেখা হয়েছে, আহারে কিভাবে পেটানো হলো আবরারকে।

ভাইরাল ভুয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, এক যুবককের হাত-পা ধরে রেখেছে চার ব্যক্তি। আর দুই ব্যক্তি লাঠি দিয়ে ওই যুবকের পিঠ ও পশ্চাতদেশে অনরবত পেটাচ্ছে। এক মিনিট পাঁচ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটিতে পুরোটা সময়ই ওই যুবককে পেটাতে দেখা যায়।

আমাদের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ভিডিওটি আবরারকে পেটানোর ভিডিও নয়। কারণ ভিডিওটিতে যাদের দেখা যাচ্ছে তাদের পোশাক, স্থান ও মানুষের উপস্থিতির সঙ্গে আবরারের ঘটনার কোনো মিল নেই। আবরারের ঘটনায় যে সিসিটিভি ভিডিও প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তার সঙ্গেও ওই ভুয়া ভিডিওটির কোনও মিল নেই। আর ভুয়া ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে আবরারকে একটি প্যান্ট পরিহিত। কিন্তু আবরারের প্রকৃত ছবিতে ছিলো ট্রাউজার পরিহিত।

অনুসন্ধান করে আরো দেখা যায়, ভিডিওটি প্রথম পোস্ট করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ভিডিও শেয়ার ওয়েবসাইট ‘লাইভ লীক। যুবককে পেটানোর সেই ভিডিওটি গত চার বছর আগে লাইভ লীক তাদের ওয়েবসাইটে পোস্ট করে শিরোনাম দেয় ‘cheating man gets a public caning’।

ভাইরাল ভুয়া ভিডিওটি সম্পর্কে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব:) আব্দুর রশিদ বলেন, বিষয়টিকে হালকাভাবে দেখার অবকাশ নেই। কেননা অনেকে এসব ভুয়া ভিডিও বিশ্বাস করে থাকে ফলে সরকারের বা সরকারি দলের উপরে তাদের নেতিবাচক কিংবা কোনো কোনো ক্ষেত্রে আক্রমনাত্মক প্রভাব পড়ে। সুতরাং এসবের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। ভাইরাল হওয়ার আগেই যাতে ব্যান করা যায় এসব ভিডিও সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে হবে সরকারকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 × 2 =