Templates by BIGtheme NET
৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১০ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

ভাঙনের কবলে আ স ম রবের জেএসডি

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ১৩, ২০১৯, ৭:১৪ অপরাহ্ণ

বিএনপির সঙ্গে জোট গঠন করে রাজনৈতিক আদর্শ জলাঞ্জলি দেয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে আবারও নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে রবের নেতৃত্বাধীন জেএসডিতে। এরই ধারাবাহিকতায় মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক চার খলিফার এক খলিফা আ স ম রবের নেতৃত্বাধীন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) আবারও ভাঙনের মুখে পড়তে যাচ্ছে।

জেএসডি সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে সংগঠনটির নেতৃত্বে রয়েছেন সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন। কিন্তু সংগঠনে ব্যক্তি ও পরিবারতন্ত্র, কোটারিতন্ত্র ও রাজনৈতিক আদর্শের বিচ্যুতির অভিযোগে দলে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। বিশেষ করে, আগামীতে দলের নেতৃত্বকে কেন্দ্র করেই আ স ম আব্দুর রব ও আবদুল মালেক রতনের মধ্যে মতভেদ দেখা দিয়েছে। আর এ কারণেই ভাঙনের মুখে পড়েছে জেএসডি। এরই মধ্যে রবের বিরদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কাউন্সিলকে অবৈধ ঘোষণা করে রতনের নেতৃত্বে ১১ জানুয়ারি জাতীয় কনভেনশনও ডাকা হয়েছে।

জেএসডির ভাঙনের বিষয়ে জানতে চাইলে সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন বলেন, আমাদের ডাকা কাউন্সিলে মেনে না নিলে দল ভাঙতেও পারে। ভাঙাটাই স্বাভাবিক। আমরা চাই আমাদের দল চলবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গঠনতন্ত্র মেনে। সেখানে কোনো ব্যক্তিতন্ত্র, পরিবারতন্ত্র ও স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে আঁতাত থাকবে না। দল চলবে নেতাকর্মীদের মতামতের ভিত্তিতে।

জানা গেছে, ২৮ ডিসেম্বরের কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকদিন থেকেই মতভেদ চলছে জেএসডিতে। দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতনের নেতৃত্বে একটি অংশ দলে গণতান্ত্রিকভাবে নেতৃত্ব নির্বাচনের প্রস্তাব দিলেও চেয়ারম্যান আ স ম আবদুর রবসহ একটি পক্ষ এর বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। যার কারণেই মতভেদ দেখা দিয়েছে। যারই ধারাবাহিকতায় ১২ নভেম্বর রতনসহ দলের শীর্ষস্থানীয় ৮ নেতা এক বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তারা জেএসডির হতে যাওয়া ২৮ ডিসেম্বরের কাউন্সিল ঘোষণাকে অবৈধ দাবি করে ১১ জানুয়ারিকে কাউন্সিলের নতুন তারিখ ঘোষণা করেন। এরপর থেকেই পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দিচ্ছে দুইটি পক্ষ। যার কারণেই দলে ভাঙন ধরতে পারে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

যদিও দলটির সহ-সভাপতি ও আ স ম আব্দুর রবের সহধর্মিণী তানিয়া রব বলেন, দলের এমন মতভেদ খুব তাড়াতাড়ি মিটে যাবে। এ ধরনের বিরোধ এসময়ে কারও জন্য মঙ্গল নয়। তাই দল ভেঙে যাচ্ছে এমনটা ভাবা ঠিক হবে না। আমরা আলাপ আলোচনা করছি, তাদেরকে পাল্টা সমঝোতার প্রস্তাবও দিয়েছি। আশা করি সব ঠিক হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

13 − 10 =