Templates by BIGtheme NET
২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, ১৬ ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২ রজব, ১৪৪১ হিজরী

বিশ্বে প্রতিদিন বায়ু দূষণে ক্ষতি হয় ৮০০ কোটি ডলার

প্রকাশের সময়: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০, ১২:৪৫ অপরাহ্ণ

প্রতি বছর জীবাশ্ম জ্বালানি পোড়ানোর ফলে সৃষ্ট বায়ু দূষণে প্রতিদিন ৮০০ কোটি ডলার ক্ষতির শিকার হচ্ছে বিশ্বের অর্থনীতি। যা বিশ্ব জিডিপির ৩.৩ শতাংশ। ২০১৮ সালে বায়ু দূষণের কারণে বৈশ্বিক অর্থনৈতির লোকসান হয়েছিল ২ লাখ ৯০ হাজার কোটি ডলার।

পরিবেশ বিষয়ক গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অন এনার্জি অ্যান্ড ক্লিন এয়ার (সিআরইএ) ও গ্রিনপিস সাউথইস্ট এশিয়ার যৌথ এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে ১২ ফেব্রুয়ারি এ তথ্য জানায় বার্তা সংস্থা এএফপি।

বায়ু দূষণে বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষতি বিষয়ক এটাই প্রথম গবেষণা প্রতিবেদন। বিশেষ করে তেল, গ্যাস ও কয়লা পোড়ানোয় যে ক্ষতি হয় সেদিকে জোর দেয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, জীবাশ্ম জ্বালানী পোড়ানোয় সৃষ্ট বায়ু দূষণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার চীনের মূল ভূখণ্ড, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত। প্রতি বছর এই তিন দেশের ক্ষতি হয় যথাক্রমে ৯০ হাজার কোটি ডলার, ৬০ হাজার কোটি ডলার ও ১৫ হাজার কোটি ডলার।

এ ছাড়া জার্মানি, জাপান ও রাশিয়ার প্রতি বছর ক্ষতি হয় যথাক্রমে ১৪ হাজার কোটি ডলার, ১৩ হাজার কোটি ডলার ও ৬ হাজার ৮০০ কোটি ডলার, ৬ হাজার ৬০ কোটি ডলার।

গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে, জীবাশ্ম জ্বালানি পোড়ার সময় বাতাসে মিশে যাওয়া ক্ষতিকর কণাগুলোর কারণে প্রতি বছর বিশ্বজুড়ে অকাল মৃত্যু হয় ৪৫ লাখ মানুষের। এর মধ্যে চীনে অকাল মৃত্যুর সংখ্যা ১৮ লাখ ও ভারতে ১০ লাখ।

গবেষকরা বলছেন, জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে হওয়া বায়ু দূষণ জন স্বাস্থ্য ও অর্থনীতির জন্য হুমকি। নবায়নযোগ্য জ্বালানী উৎস ব্যবহার করে, ডিজেল ও পেট্রোলচালিত মোটরগাড়ি বাদ দিয়ে ও গণপরিবহণ ব্যবহার চালু করে এ সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।

নতুন এই তথ্যের সঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) দেয়া তথ্যের মিল রয়েছে। এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল, বায়ুদূষণের কারণে প্রতিবছর বিশ্বে ৪২ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়। বেশিরভাগই মারা যায় হৃদরোগ, স্ট্রোক, ফুসফুসের ক্যান্সার এবং শিশুদের তীব্র শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

11 − 3 =