Templates by BIGtheme NET
২৯ মার্চ, ২০২০ ইং, ১৫ চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৪ শাবান, ১৪৪১ হিজরী

করোনা মোকাবেলায় ভিডিও কনফারেন্সে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশের সময়: মার্চ ২০, ২০২০, ৯:১৬ অপরাহ্ণ

করোনা পরিস্থিতিতে সতর্কতা অবলম্বনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিতের পরামর্শ দিয়েছেন দেশীয় আইসিটি খাত সংশ্লিষ্টরা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত দৈনন্দিন নানা কাজে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলোকে যেন আরও বেশি ব্যবহার করা হয় সেদিকে গুরুত্বারোপ করেছেন এ খাতের শীর্ষ ব্যক্তিরা।

শুক্রবার (২০ মার্চ) বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পর সরকারি পর্যায়ে প্রথমবারের মতো ভিডিও প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করে আইসিটি বিভাগ। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জনতা টাওয়ারে আয়োজিত এ ভিডিও কনফারেন্সে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ভিডিও সংবাদ সম্মেলন ও মতবিনিময় সভায় বক্তারা করোনার এমন পরিস্থিতিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সেবার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিতের প্রতি আহবান জানান। বিশেষ করে আর্থিক লেনদেনে ডিজিটাল ওয়ালেট এবং দৈনন্দিন কেনাকাটায় ইকমার্স ব্যবহারের তাগিদ দেওয়া হয়েছে এ সভায়।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা সাবধানতা অবলম্বন করবো। আশা রাখি, দুই সপ্তাহের মধ্যে এর সুফল পাবো। কিন্তু তারপরেও পরিস্থিতি যদি খারাপের দিকে যায়, তাহলে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে পারি। স্ট্যান্ডার্ড অপারেশনাল প্রসিডিউর (এসওপি) এবং বিজনেস কন্টিনিউটি প্ল্যান (বিসিপি) তৈরি করে আমাদের এসব প্রস্তুতি নিতে হবে। এর জন্যই মূলত আমরা এ সংবাদ সম্মেলন এবং মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছি। আমরা সব অংশীদারদের সঙ্গে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। প্রাথমিকভাবে চারটি খাতকে গুরুত্ব দিচ্ছি। সেগুলো হলো স্বাস্থ্য, শিক্ষা, লজিস্টিক এবং বিনোদন। এসব খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি অংশীদাররা কি ধরনের এসওপি এবং বিসিপি তৈরি করে কাজ করতে পারি আমরা সেই কৌশলগত পরিকল্পনা করতে চাই।

দুপুর ৩টা ৫ মিনিটে শুরু হওয়া এ ভিডিও কনফারেন্স তিনঘণ্টারও বেশি সময় পর্যন্ত স্থায়ী হয়। এসময় আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, এক্সেস টু ইনফরমেশনের (এটুআই) পলিসি অ্যাডভাইজার আনির চৌধুরী, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপির বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের (বাক্য) সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ, ইকমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সভাপতি শমী কায়সার সহ রাইডিং শেয়ারিং, শিক্ষা, ইকমার্স, লজিস্টিক প্ল্যাটফর্ম, টেলিকম খাতের শীর্ষ ব্যক্তি এবং দেশের আইসিটি খাতে কাজ করা গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, লজিস্টিক এবং বিনোদন খাতের বিভিন্ন দিক প্রযুক্তিগতভাবে কিভাবে কাজ করতে পারে এবং জনগণকে সেবা দিতে পারে সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। ডিজিটাল কনটেন্টের মাধ্যমে ঘরে বসেই শিক্ষাদান, টেলিমেডিসিনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া, খাবার–ওষুধ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্য ইকমার্স প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে লজিস্টিক সেবায় জনগণের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া এবং সর্বোপরি বাড়িতে থাকা মানুষদের বিনোদনের যোগান দিতে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলো তাদের নিজ নিজ পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

8 − 2 =