Templates by BIGtheme NET
২৮ মে, ২০২০ ইং, ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৪ শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী

বঙ্গোপসাগরেই কেন বেশি ঘূর্ণিঝড়

প্রকাশের সময়: মে ২০, ২০২০, ৪:২৬ অপরাহ্ণ

ওয়েদার আন্ডারগ্রাউন্ড নামের একটি ওয়েবসাইটে বিশ্বের ৩৫টি সবচাইতে ভয়ঙ্কর মৌসুমি ঘূর্ণিঝড়ের তালিকা রয়েছে। এই তালিকার ২৬টি ঘূর্ণিঝড়ই বঙ্গোপসাগরে। বর্তমানে সুপার সাইক্লোনে রূপান্তর হওয়া ঘূর্ণিঝড় আম্ফান ২০ মে বিকাল নাগাদ বাংলাদেশ এবং ভারতের উপকূলে আঘাত হানবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে, সেটি হবে এ ধরনের ২৭তম ঘূর্ণিঝড়।

ঐতিহাসিক সুনিল অমৃত বঙ্গোপসাগরকে বর্ণনা করেছেন, ‘এক বিস্তীর্ণ জলরাশি, যা জানুয়ারিতে একেবারে শান্ত এবং নীল, আর গ্রীষ্মের বৃষ্টিতে এটির রূপ একেবারে ভিন্ন। ফুঁসতে থাকা ঘোলা জলের সমুদ্র।’ বিশ্বের ইতিহাসে যতসব ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় উপকূলে আঘাত হেনেছে, তার বেশিরভাগই হয়েছে এই বঙ্গোপসাগরে।

বঙ্গোপসাগরেই কেন এত বেশি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় হয়: আবহাওয়াবিদদের মতে, সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস সবচেয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে অবতল আকৃতির অগভীর উপসাগরে। মৌসুমি ঘূর্ণিঝড়ের তীব্র বাতাস যখন এ রকম জায়গায় সাগরের পানিকে ঠেলতে থাকে, তখন ফানেল বা চোঙার মধ্যে তরল যে আচরণ করে, এখানেও তা-ই ঘটে। সাগরের ফুঁসে ওঠা পানি চোঙা বরাবর ছুটতে থাকে।

তবে বঙ্গোপসাগরের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরও বাড়তি কিছু বৈশিষ্ট্য। যেমন সমুদ্রের উপরিতল বা সারফেসের তাপমাত্রা। ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের প্রধান ডি. মহাপাত্র বলেন, সাগরের উপরিতলের তাপমাত্রা পরিস্থিতিকে আরও বিপজ্জনক করে তোলে। আর বঙ্গোপসাগর খুবই উষ্ণ এক সাগর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 × 5 =