Templates by BIGtheme NET
১৫ আগস্ট, ২০২০ ইং, ৩১ শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৩ জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী

হজের খুতবায় করোনামুক্তি ও বিশ্ব শান্তি কামনা

প্রকাশের সময়: জুলাই ৩১, ২০২০, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে এ বছর সীমিত পরিসরে ঐতিহাসিক আরাফাত ময়দানে মসজিদে নামিরাহ স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে গতকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়ে গেল পবিত্র হজ। সীমিতসংখ্যক ধর্মপ্রাণ মুসল্লি জোহর ও আসরের নামাজ এক আজানে ইকামতে আদায় করেন। আজকের এ দিনটিকে বলা হয় আরাফাত দিবস। পবিত্র অনুভব আর ঐশী আবেগে উদ্ভাসিত হাজারও মুসল্লির উপস্থিতিতে আরাফাত প্রান্তর ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। ইসলামের ইতিহাসে হজ পালনে শুভ্র বসনে অভিন্ন অবস্থানে অগণিত নারী-পুরুষের কণ্ঠে উচ্চারিত হয় সেই ধ্বনি ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শরিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়ানিন মাতা লাকাওয়ালমুলক লা শারিকালাক।

গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে বারোটায় সালাম দিয়ে হজের খুতবা শুরু করেন নতুন খতিব শায়খ আবদুল্লাহ বিন সোলায়মান আল মানিয়া। খুতবার শুরুতে তিনি আল্লাহতায়ালার প্রশংসা ও হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ওপর দরুদ পাঠ করেন। খুতবায় তিনি বৈশ্বিক মহামারী থেকে মুক্তি, গোনাহ মাফ, আল্লাহর রহমত কামনাসহ সমসাময়িক প্রসঙ্গ নিয়ে নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন।

খুতবায়, মানুষের অধিকার বিশেষ

নারীর অধিকার ও উত্তরাধিকার সম্পত্তি বণ্টনের ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন। সেই সঙ্গে ওয়াদা পালন, মাতাপিতার সেবা, সৎকাজের আদেশ, অসৎকাজের নিষেধ, মানবসেবা, রাষ্ট্রীয় সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা রক্ষায় নাগরিকদের সচেতন হওয়ার কথা বলেন।

শায়খ মানিয়া খুতবায় কোরআনে কারিমের বিভিন্ন আয়াত ও হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে মানুষকে ইসলামের পূর্ণাঙ্গ অনুসারী হওয়ার আহ্বান জানান। ইবাদত-বন্দেগির বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেন। আরাফাতের ময়দানে করণীয়সহ হজের পরবর্তী বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেন। নামাজ, পবিত্রতা অর্জন, রোগীর সেবা, মহামারী উপদ্রুত এলাকায় প্রবেশ না করা এবং ওইসব এলাকা থেকে অন্যত্র না যাওয়ার কথা বলেন।

লিখিত খুতবায় তিনি বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে সৌদি সরকারের গৃহীত হজের প্রেক্ষাপট নিয়ে কথা বলেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, খুব দ্রুত বৈশ্বিক এই মহামারী কেটে যাবে। আবার আগের মতো হজ ও উমরা যাত্রীদের আগমনে মুখর হবে পবিত্র এই ভূমি।

খুতবা শেষে জোহরের নামাজের আজান দেওয়া হয়। আজান দেন মসজিদের হারামের মুয়াজ্জিন শায়খ ইমাদ বিন আলি ইসমাইল। এর পর খতিব উপস্থিত হাজিদের নিয়ে দুই ইকামতে জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করেন।

এ বছর পবিত্র হজের আরবি খুতবা অন্যান্য ভাষার পাশাপাশি বাংলা ভাষায়ও অনুবাদ করে সম্প্রচার করা হচ্ছে। দুটি সম্প্রচার মাধ্যমে হজের খুতবা ১০টি ভাষায় অনুবাদ করে প্রচার করা হচ্ছে। বাংলা ছাড়াও বাকি নয়টি ভাষা হলো ইংরেজি, মালয়, উর্দু, ফার্সি, ফ্রেঞ্চ, মান্দারিন, তুর্কি, রুশ ও হাবশি। ২০১৯ সালের হজে ৫ ভাষায় হজের খুতবার অনুবাদ প্রচারিত হয়েছিল।

কাবাঘরে চড়ানো হলো স্বর্ণখচিত নতুন গিলাফ

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে এবারই রীতি ভেঙে ও অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পবিত্র কাবার গিলাফ পরিবর্তনের কাজ সম্পন্ন করেছে কাবা পরিচর্যা ও পরিচালনা কর্তৃপক্ষ।

৯ জিলহজ, বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পরে হজযাত্রীরা আরাফাতের ময়দানে চলে গেলে গিলাফ পরিবর্তনের কথা থাকলেও রীতি ভেঙে বুধবার রাতে পুরনো গিলাফ বদলে নতুন গিলাফ চড়ানোর কাজ শুরু হয়। নতুন গিলাফ চড়ানোর কাজ শুরু করার কিছুক্ষণ পরই বৃষ্টি শুরু হয়। অব্যাহত প্রচেষ্টায় টানা ৫ ঘণ্টা সময়ে হারামাইন শরিফাইনের সভাপতির তত্ত্বাবধানে গিলাফ পরিবর্তনের প্রক্রিয়া শেষ করেন এ কাজে নিয়োজিত বিশেষ কর্মীরা। এ দিকে গিলাফ পরিবর্তনের কাজে অংশ নিয়েছে সৌদির প্রভাবশালী অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান।

এর আগে কাবার নতুন গিলাফ বাদশা আবদুল আজিজ কিসওয়া কমপ্লেক্স থেকে অত্যন্ত আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহৃত একটি বিশেষ ট্রাকে করে সুসজ্জিত বহরের মাধ্যমে মসজিদে হারাম পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় যে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ও ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে যাবতীয় সতর্কতা ও সাবধানতা অবলম্বন করা হয়।

কাবা শরিফের নতুন এই গিলাফে ৬৭০ কেজি খাঁটি রেশম, ১২০ কেজি খাঁটি স্বর্ণ এবং ১০০ কেজি রুপার সুতা ব্যবহার করা হয়েছে। স্বর্ণের সুতা দিয়ে গিলাফের বিভিন্ন অংশে কোরআনের আয়াত লেখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

six + 19 =