Templates by BIGtheme NET
১৩ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩০ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৩০ রমজান, ১৪৪২ হিজরি

কাশি, হাঁচি, স্বাদ ও ঘ্রাণে কোনো পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয়নি টিকা গ্রহণকারীর:গবেষণা

প্রকাশের সময়: এপ্রিল ১৯, ২০২১, ২:৫৪ অপরাহ্ণ

টিকাগ্রহণ করা ব্যক্তিরা করোনা আক্রান্ত হলেও তাদের স্বাস্থ্যঝুঁকি অনেক কম। আক্রান্তদের মধ্যে ৮২ দশমিক ৫ শতাংশ রোগীকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যেতে হয়নি।

টিকা নেওয়ার পর আক্রান্ত ১৭ দশমিক ৫ শতাংশ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হলেও তাদের মধ্যে কোনো মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি পরিলক্ষিত হয়নি।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) এক গবেষণায় এমন তথ্য ওঠে এসেছে।

গবেষণায় প্রমাণ হয়েছে ভ্যাকসিন নেয়া অধিকাংশের শ্বাসকষ্ট হয়নি এবং অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়েনি। টিকা নেওয়ার পর করোনা আক্রান্ত হলেও মৃত্যুঝুঁকি কমে আসে।

টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পর আক্রান্ত ২০০ জনের মধ্যে মাত্র একজনের মৃত্যু হয়েছে। এই হার শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

মৃত ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে কিডনিজনিত জটিলতায় ভুগছিলেন। এ ছাড়া তার বিভিন্ন রোগ ছিল। তবে টিকার প্রথম ডোজ নেওয়া অন্যরা ভালো আছেন।

গবেষণায় দেখা যায়, প্রথম ডোজ টিকা নেওয়া রোগীদের ক্ষেত্রে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর লিঙ্গভেদে পুরুষ ৪৪ দশমিক ৫ শতাংশ এবং ৯১ শতাংশ নারীর মধ্যে কোনো ধরনের কাশি ও হাঁচি পরিলক্ষিত হয়নি।

একই সঙ্গে ৫৬ দশমিক ৫ শতাংশ পুরুষ ও ৫৫ দশমিক ৫ জন নারী রোগীর যথাক্রমে স্বাদ ও ঘ্রাণে কোনো পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয়নি।

গবেষণার ইতিবাচক দিক হচ্ছে প্রথম ডোজ টিকা নেওয়ার পর আক্রান্ত ২০০ রোগীর মধ্যে মাত্র একজনের আইসিইউতে ভর্তির প্রয়োজন হয়।

আক্রান্তদের মধ্যে ১৯০ জন নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ এসেছে। বাকি ৯ জনের শারীরিক কোনো সমস্যা নেই। তারা বাসায় থেকে চিকিৎসা নেন।

সিভাসু উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম বুদ্ধ দাশের নেতৃত্বে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ নেওয়া করোনা আক্রান্তদের স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলে গবেষণাটি চালানো হয়।

গবেষক দলে অন্যদের মধ্যে ছিলেন অধ্যাপক ড. শারমিন চৌধুরী, ডা. ইফতেখার আহমেদ রানা, ডা. ত্রিদীপ দাশ, ডা. প্রনেশ দত্ত, ডা. সিরাজুল ইসলাম এবং ডা. তানভীর আহমদ নিজামী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

one × two =