Templates by BIGtheme NET
২১ আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ ভাদ্র, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১২ মহর্‌রম, ১৪৪৩ হিজরি

আকবর-হৃদয়দের বড় চ্যালেঞ্জ `বায়োবাবল`

প্রকাশের সময়: আগস্ট ২১, ২০২১, ৮:৩৫ অপরাহ্ণ

করোনাকালীন ক্রিকেট মানেই বায়োবাবল তথা জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা এতে অভ্যস্ত হলেও জাতীয় দলের আগের ধাপের দলগুলোর ক্রিকেটারদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। বায়োবাবলে থেকে ক্যাম্প করার আগে তাই সেই চ্যালেঞ্জের কথাই বললেন হাইপারফরম্যান্স দলের সদস্য আকবর আলী-তৌহিদ হৃদয়রা।

করোনা পরীক্ষায় কয়েকজন ক্রিকেটার পজিটিভ প্রমাণিত হওয়ায় নির্ধারিত সময়ের চার দিন পর শুরু হচ্ছে এইচপি ক্যাম্প। রোববার (২২ আগস্ট) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ক্যাম্প শুরু করবে আকবর আলিরা। জাতীয় দলের জন্য নিজেদের প্রস্তুতের এই মিশনে বড় চ্যালেঞ্জ বায়ো বাবলে থাকা।

আজ ঢাকা ছাড়ার আগে যুব বিশ্বকাপজয়ী দলের দুই সদস্য আকবর আলি ও তৌহিদ হৃদয় বিসিবির বরাত দিয়ে নিজেদের লক্ষ্য ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে কথা বলেন।

যুব বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক আকবর আলি বলেন, ‘‘আমাদের এই ক্যাম্পের মূল উদ্দেশ্যই থাকবে যে কঠিন একটি পরিস্থিতি আছে এখানে, জৈব সুরক্ষা বলয় মেনে চলতে হবে এবং খুব সতর্কতার সাথে আমাদের ক্যাম্পে থাকতে হবে। মেডিক‌্যাল বিভাগ ও আমাদের (এইচপি) বিভাগের চেয়ারম্যান গতকাল (শুক্রবার) আমাদের এই বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন।

‘সেগুলো আমরা চেষ্টা করব মেনে চলার। সবারই তো মূল উদ্দেশ্য থাকে জাতীয় দলে খেলার। তো জাতীয় দলে খেলার জন্য যে সমস্যাগুলো রয়েছে, আমাদের সে সমস্যাগুলো আমরা এই ক্যাম্পের মাধ্যমে কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করব। কিছুটা হলেও আমরা যেন এই ক্যাম্প থেকে উন্নতি করতে পারি সেটাই মূল লক্ষ্য থাকবে।’’

তৌহিদ হৃদয়ের কণ্ঠেও বায়ো বাবল চ্যালেঞ্জের সুর, ‘’আসলে করোনা মহামারীর মধ্যে এই ক্যাম্পটা করা অনেক কঠিন ছিল। অনেক কিছু পার করে আমরা ক্যাম্প করতে যাইতেছি। আমাদের মূল লক্ষ্য থাকবে এইচপি ক্যাম্প থেকে কীভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমাদের টেকনিক্যাল সাইডগুলো ভালো করবো, উন্নতি করবো।

‘যাতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমরা সারভাইভ করতে পারি। আমাদের চেয়ারম্যান দূর্জয় স্যার বলেছেন বায়োবাবলের ব্যাপারটা। আমরা অনেক সিরিয়াস। কারণ, বায়োবাবল মেনটেইন করা কঠিন একটা ব্যাপার। আমাদের সবার সেরা চেষ্টা থাকবে কীভাবে বায়োবাবল মেইনটেইন করতে পারি, যাতে করে কোন দুর্ঘটনা না ঘটে।’’

যদিও এইচপি চেয়ারম্যান নাইমুর রহমান দুর্জয় ক্রিকেটারদের ঢাকা ত্যাগের আগে বায়ো বাবল নিয়ে দিয়েছেন বিশেষ পরামর্শ। ২২ সদস্যের স্কোয়াডটি চট্টগ্রামে সাত সপ্তাহের ক্যাম্প করবে। যেখানে ‘এ’ দলের ক্রিকেটারদের সাথে তিনটি একদিনের ও দুইটি চারদিনের ম্যাচ খেলবে এইচপি ইউনিট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

13 + 20 =