Templates by BIGtheme NET
৯ অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৪ আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সুন্দরবনের সমস্যা : যে ৩ প্রকল্পে হবে সমাধান !

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ৯, ২০২১, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

জলবায়ু পরিবর্তনসহ অসাধুদের কারণে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে সুন্দরবনের প্রাণপ্রকৃতি। প্রতিনিয়ত চোরা শিকারির দৌরাত্ম, অবাধে বৃক্ষ নিধন, নিরাপত্তা জটিলতায় পর্যটন খাতে ধসসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত সুন্দরবন।

এই অবস্থায় দেশের অক্সিজেনের ভান্ডার সুন্দরবনের জীব-বৈচিত্র সুরক্ষায় ও বনের যাবতীয় সমস্যার সমাধানে ১৮৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩টি বিশেষ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার।

প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে- ৪টি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র নির্মাণ, পুরো সুন্দরবনকে সুরক্ষার আওতায় আনা ও বনের বাঘসহ বণ্যপ্রাণির সুপেয় পানির চাহিদা মেটাতে ৮৪টি পুকুর খনন ও পুনঃখনন প্রকল্প।

সুন্দরবনের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আগে দেশ-বিদেশের হাজার হাজার পর্যটক ঘুরতে আসলেও এখন সেই আগ্রহ অনেকটাই কমেছে ভ্রমণ পিপাসুদের।

এ জন্য সম্পূর্ণ বিজ্ঞানসম্মত ইকোট্যুরিজম কেন্দ্রগুলোতে থাকছে সাড়ে ৬ হাজার বর্গমিটারের নিরাপত্তা বেষ্টনির একটি আরসিসি ফুট ট্রেইল, যেখানে পায়ে হেটে বনের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন দর্শনার্থীরা।

আরও থাকছে, একটি ইন্টারপ্রিটেশন ও ইনফরমেশন সেন্টার, সাতটি স্যুভেনির শপ, ঝুলন্ত সেতু, ইকোট্যুর অপারেটর, গাইড কো ম্যানেজমেন্ট, পাবলিক টয়লেট, প্রদর্শনী ম্যাপ সেড, আরসিসি বেঞ্চ ও পর্যবেক্ষণ টাওয়ার।

সুরক্ষা প্রকল্পের আওতায় থাকছে ২৮টি ঝুঁকিপূর্ণ বন ভবন সংস্কার, পলি পড়ে ভরাট হওয়া একাধিক নদী-খাল পূন:খনন, বনের পানি, মাটি, বৃক্ষরাজী ও বন্যপ্রাণিসহ প্রাণপ্রকৃতি নিয়ে গড়ে তোলা হবে ইকোলজিক্যাল মনিটরিং সিস্টেম।

পাশাপাশি উচ্চতর গবেষণার জন্য সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হচ্ছে জিওগ্রাফি ইনফরমেশন সিস্টেম বা জিআইএস ল্যাব। এই ল্যাব দিয়ে সুন্দরবনের হাল নাগাদ মানচিত্র তৈরি করা হবে। ফলে বনের জীববৈচিত্র সুরক্ষায় বিজ্ঞান সম্মত সিদ্ধান্ত নিতে পারবে বন বিভাগ।

পুকুর খনন ও পুনঃখনন প্রকল্পের মাধ্যমে লবনাক্ত জলাভূমি সুন্দরবনের ৩৭৫ প্রজাতির বন্যপ্রাণীর দীর্ঘদিনের সুপেয় মিঠাপানির চাহিদা মেটানো হবে। ২০২২ সালের শেষ দিকে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়িত হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × 3 =